30.4 C
Durgapur
Thursday, October 1, 2020

চূড়ান্ত অব্যবস্থা ‘শ্রমিক স্পেশাল’ ট্রেনে, যাত্রী বিক্ষোভে উত্তাল আসানসোল ও দুর্গাপুর

উদয় সিং, আসানসোল : কেউ কেউ গেছিলেন বেঙ্গালোরে চিকিৎসা করাতে।কিন্তু হঠাৎ লকডাউন হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েন তারা।তাই বেঙ্গালোরে থেকে নিউ জলপাইগুড়ি শ্রমিক স্পেশাল ছাড়তেই চেপে পড়েন তারা। কিছু মানুষের গন্তব্য ছিল পুরুলিয়া, কারও গন্তব্য হাওড়া তো কারও হুগলি। আবার কেউ কেউ নদিয়া, কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, মুর্শিদাবাদ, বাঁকুড়া, পূর্ব বর্ধমান, বীরভূম ও উত্তর ২৪ পরগনার বাসিন্দা। । সেই অনুযায়ী টিকিট ও ছিল তাদের কাছে। কিন্তু বেঙ্গালোর থেকে যখন ‘শ্রমিক স্পেশাল’ ট্রেন পুরুলিয়া এসে পৌঁছাল, তখন রেলের পক্ষ থেকে ওই স্টেশন এ নামতে বাধা দেওয়া হয় ‘শ্রমিক স্পেশাল’ এ আগত যাত্রীদের।তাই কীভাবে মাঝপথে নেমে যাওয়া যায় সেই পরিকল্পনাই করছিলেন তাঁরা। এরপর আসানসোল স্টেশন এ যা ঘটল তা রীতিমতো প্রশ্নের মুখে দাঁড় করাল এই ‘শ্রমিক স্পেশাল’ এর সুবিধা নিয়ে।

দেশে লকডাউনের চালু হওয়ার পর সবথেকে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন পরিযায়ী শ্রমিকেরা। প্রায় প্রতিনিয়তই খবরের শিরোনামে উঠে আসে দেশের বিভিন্ন্য প্রান্তে ফেঁসে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরার আর্তনাদ। বিভিন্ন্য সময়েই দেখা যাচ্ছে বাড়ি ফেরার কোন উপায় না পেয়ে হাঁটা পথকেই বেঁচে নিচ্ছেন বাড়ি ফেরার উপায় হিসাবে। এর ফলে দেশের বিভিন্ন্য প্রান্ত থেকে প্রায়শই পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানোর করুন দৃশ্য চোখে পড়ছে দেশের মানুষের। সাম্প্রতিক কালে ঘটে যাওয়া মধ্যপ্রদেশের একটি ট্রেন দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান ১৬ জন পরিযায়ী শ্রমিক। এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় রীতিমতো নড়ে চড়ে বসে দেশের নেতৃত্ব। এরপরই প্রধানমন্ত্রী দেশের সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিরাপদে বাড়ি পৌঁছানোর জন্য আলোচনা করেন। এরপর কেন্দ্রের তরফ থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিরাপদে বাড়ি ফেরাবার জন্য ‘শ্রমিক স্পেশাল’ ট্রেন চালাবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এরপর বেঙ্গালোরে আটকে পড়া বেশ কিছু বাঙালিদেরকে নিয়ে ‘শ্রমিক স্পেশাল’ ট্রেন রওনা হয়। এই ট্ট্রেনটিতে দক্ষিণবঙ্গের বহু যাত্রী ছিলেন। তারা পরিকল্পনা মাফিক যখন তাদের গন্তব্য স্টেশন এ নামতে চান তখন রেলের পক্ষ থেকে বাধা দেওয়া হয়। বলা হয় তাদেরকে সোজা নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন এ নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখান থেকে বাসের মাধ্যমে ফেরত আনা হবে। এই কথা শোনার পর রীতিমতো উত্তেজিত হয়ে পড়েন যাত্রীরা। এরপর আসানসোল স্টেশন এ যখন ট্রেন এসে থামে তখন স্টেশন এ নেমে রীতিমতো বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন যাত্রীরা। তাদের অভিযোগ, ‘শ্রমিক স্পেশাল’ ট্রেন এ না দেওয়া হচ্ছে কোন খাবার, না পরিষ্কার করা হচ্ছে টয়লেট। এমনকি যাত্রীদের অভিযোগ, টয়লেট এত অপরিষ্কার যে সেটি ব্যবহারের অনুপযোগী। এই টয়লেট ব্যবহার করে বহু যাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলেও অভিযোগ যাত্রীদের। এখানেই শেষ নয়, তাদের অভিযোগ, সরকারি নির্দেশিকা কে এক প্রকার বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ম্যান হয় নি এই ট্রেন এ কোন রকমের সামাজিক দূরত্ব ও। ট্রেন এর মধ্যে নিয়ম না মেনে প্রচুর সংখ্যক যাত্রী নিয়ে আসার ও অভিযোগ করেন তারা। এরপর ট্রেন যখন দুর্গাপুর স্টেশন এ পৌঁছায় ইঞ্জিন বদলানোর জন্য তখন ৫৭ জন যাত্রী ট্রেন থেকে নেমে পড়েন এবং বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বলে খবর। রেল পুলিশ প্রাথমিকভাবে বাধা দেয়। তবে যাত্রী বিক্ষোভের জেরে পিছু হটে তারা।

এরপর দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতাল থেকে স্বাস্থ্যকর্মী, দুর্গাপুরের কোকোভেন থানার পুলিশ ও দুর্গাপুরের মহকুমা শাসক অনির্বাণ কোলে ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। দুর্গাপুরের যাত্রীরা ছাড়াও এদিন নদিয়া, কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, মুর্শিদাবাদ, বাঁকুড়া, পূর্ব বর্ধমান, বীরভূম ও উত্তর ২৪ পরগনার যাত্রীরাও ছিলেন। সবাইকে থার্মাল স্ক্রিনিং করার পর তদেরকে ঘরে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। তড়িঘড়ির মধ্যে বিভিন্ন জেলার যাত্রীদের জন্যে গাড়ির ব্যবস্থা করে তাদের ওই জেলায় পাঠায় দুর্গাপুরের প্রশাসন। মহকুমা শাসক অনির্বাণ কোলে বলেন, “দুর্গাপুরে নামা প্রতিটি যাত্রীরই খাওয়াদাওয়ার ব্যবস্থা করে তাদের নির্দিষ্ট জেলায় ছাড়ার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। তাদের সমস্ত তথ্যও থাকছে আমাদের কাছে।”

এই ঘটনায় রেলের তরফ থেকে বরাত পাওয়া সংস্থা IRCTC র নগ্ন দশা আবারও জন সমক্ষে এসে পড়ল।

এই মুহূর্তে

পুজোর মুখে কারখানায় সাসপেনশন অফ ওয়ার্কের নোটিশ !

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ পুজোর মুখে দুঃসংবাদ। কারখানায় সাসপেনশন অফ ওয়ার্কের নোটিশ (Notice) ঝোলাল বাঁকুড়ার জুনবেদিয়ার একটি কাস্ট আয়রন ফ্যাক্টরি।

দীর্ঘদিন ধরে রাস্তা বেহাল ,বিক্ষোভ কৃষকদের

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ মাঠ ভেবে ভুল করবেন না , কোনো আলপথও নয় ! এই ছবি বাঁকুড়া জেলার সোনামুখী থানার রাধামোহন পুর পঞ্চায়েতের...

‘পথশ্রী’ অভিযানের ভার্চুয়াল উদ্বোধন রাজ্য জুড়ে

সোমনাথ মুখার্জী,লাউদোহা: রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের রাস্তার পুনর্নির্মাণ ও সংস্কারের সূচনা (Launch) করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । প্রকল্পের নাম 'পথশ্রী'।

রাহুল-প্রিয়াঙ্কা পৌঁছতেই ‘দাবাং’ ভূমিকায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার ঘটনায়: হাথরাস গণধর্ষণকাণ্ডের ক্ষোভের আগুনে ফুঁসছে গোটা দেশ। বিজেপিকে কোণঠাসা করতে যোগী সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদে সামিল হয়েছে...

পান্ডবেশ্বরে ইসিএলের জিএম কার্য্যালয়ের সামনে তৃণমূলের বিক্ষোভ

সোমনাথ মুখার্জী,পান্ডবেশ্বর: গত ২৮ সেপ্টেম্বর পান্ডবেশ্বরের ৮ নম্বর আবাসন এলাকায় ধসের ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্ত হয় ২০ টি বাড়ি। ফাটল নিয়ে ওই বাড়িতেই...

পুরনো চেয়ারেই দায়িত্ব সামলাবেন রাজীব

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার খবর: প্রথা মেনে মুখ্যসচিবের পদ থেকে অবসর নিয়েছেন রাজীব সিনহা । বুধবার নতুন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে দায়িত্ব তুলে...

হাথরাস গণধর্ষণকাণ্ডের প্রতিবাদে কাজোড়ায় মোমবাতি মিছিল

সোমনাথ মুখার্জী, অন্ডাল: উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে দলিত যুবতীর গনধর্ষণকাণ্ডের প্রতিবাদে (Protest) ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। দ্রুত বিচার ও অভিযুক্তদের ফাঁসির দাবি জোরালো হয়ে...

হাথরাস থেকে বলরামপুর, যোগীরাজ্যে অসুরক্ষিত মেয়েরা

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার খবর: হাথরাসের ক্ষোভ প্রশমিত হয় নি এখনো এরই মধ্যে আরও তিন তিনটে নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থাকলো উত্তরপ্রদেশ। অর্থাৎ মাত্র...
x