28 C
Durgapur
Monday, June 14, 2021

‘শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস'(Santiniketan Express)ট্রেনের এর নাম বদল করার আশঙ্কা কে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে বোলপুর

‘শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস'(Santiniketan Express)ট্রেনের এর নাম বদল করার আশঙ্কা কে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে বোলপুর

বোলপুর শান্তিনিকেতনের (Santiniketan) মানুষের কাছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর(Rabindranath Tagore ) অন্য ধরনের আবেগ বহন করে। আর এই আবেগটি কেন্দ্র করেই বোলপুর ও শান্তিনিকেতনের সমস্ত বিষয়, সে রাস্তাঘাট হোক বা দোকানপাট সবেতেই গুরুদেবের নাম ওতপ্রোতভাবে জড়িত। ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে যেমন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ কে আবেগপূর্ণ ভাবে মিশিয়ে ফেলা হয়েছে তেমনি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সমান মর্যাদা দেওয়া হয়েছে গুরুদেব কে। আজ হঠাৎ ই একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে বোলপুর শহর। আর সেটি হল বহুদিনের পুরনো এবং প্রচলিত ‘শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস‘ (Santiniketan Express)ট্রেনের এর নাম বদল করার আশঙ্কা কে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে বোলপুর শান্তিনিকেতন স্টেশন চত্বর। বোলপুর শান্তিনিকেতন সংলগ্ন সমস্ত মানুষেরই সুবিধার্থে দুইটি ট্রেন যাতায়াত করে হাওড়া বোলপুর এবং তাতে সমস্ত মানুষেরই কলকাতার সঙ্গে বোলপুরের যোগাযোগের ব্যবস্থা অনেকটা শিথিল হয়েছে। একটি ‘বিশ্বভারতী ফাস্ট প্যাসেঞ্জার’ অপরটি ‘শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস‘(Santiniketan Express)। যদিও বিশ্বভারতী ফাস্ট প্যাসেঞ্জার রামপুরহাট স্টেশন থেকে হাওড়ার যোগাযোগ করে। অন্যদিকে শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস বোলপুর শান্তিনিকেতন স্টেশন থেকে হাওড়া স্টেশন পর্যন্ত তার গন্তব্য স্থল। এর আগে যদিও তৎকালীন বোলপুরের সংসদ তথা লোকসভার প্রাক্তন স্পিকার সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের তত্ত্বাবধানে শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস কে বোলপুরের পরের স্টেশন প্রান্তিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হলেও বোলপুরের মানুষের ঐকান্তিক চেষ্টা ও বোলপুরের স্বনামধন্য ডাক্তার ডক্টর সুশোভন বন্দ্যোপাধ্যায় এর নেতৃত্বে তা বন্ধ করতে বাধ্য হয় রেল কর্তৃপক্ষ। এদিন তেমনই এক কর্মসূচি নিতে দেখা গেল বোলপুর টাউন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকদের।

shantiniketan express

হঠাৎই বোলপুর বাসীর কাছে খবর আসে ‘শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস‘(Santiniketan Express) এর নাম বদলে রাখা হবে ‘দিনদয়াল এক্সপ্রেস’। আর সে মত কাজও শুরু করে দেয় রেল কর্তৃপক্ষ বলে অভিযোগ স্থানীয় তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের। তাদের দাবি শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস থেকে গুরুদেবের ছবি সরানো যাবে না আর কোনভাবেই শান্তিনিকেতন এক্সপ্রেস এর নাম বদল করতে পারবে না রেল কর্তৃপক্ষ কারণ এই ট্রেনের সঙ্গেই বোলপুর শান্তিনিকেতনের আপামর মানুষের আবেগ জড়িয়ে আছে, যা বিগত প্রায় ৩৫ বছর ধরে চলে আসছে, তদানীন্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর আমল থেকেই। আজ বোলপুর টাউন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা স্টেশন ম্যানেজার কে ঘেরাও করে বিক্ষোভ জানাই। পাশাপাশি এক স্মারকলিপিও জমা দেন তারা।

এই মুহূর্তে

x