28.4 C
Durgapur
Sunday, August 1, 2021

নেই জমিদারি,তবুও প্রথা মেনেই আজও পঞ্চমুন্ডির আসনে পূজিত হন ‘মা’

সোমনাথ মুখার্জী,পাণ্ডবেশ্বর, জেলার খবর : গ্রামের নাম কুমারডিহি। পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোলের কাছে ছোট্ট একটি গ্রাম। প্রধানত কয়লাখনি অঞ্চল বলেই পরিচিত এই সমস্ত এলাকাগুলি। এই গ্রামেরই রায়চৌধুরী পরিবার। নামেই এখন রায়চৌধুরী। যদিও একসময় ব্যাপক প্রভাব প্রতিপত্তি ছিল এই রায়চৌধুরী পরিবারের।এই বংশের রাজনারায়ান বন্দ্যোপাধ্যায় সেই সময় ছিলেন একজন জমিদার।আর তিনিই শুরু করেন এই পরিবারে মা দুর্গার (devi durga) আরাধনা। এখন সে সবই ইতিহাস। বর্তমানে নেই সেই দিন, আর নেই জমিদারিও। তবুও প্রথা মেনে সাড়ে তিন শ বছরের ওপর ধরে একইভাবে চলে আসছে কুমারডিহি গ্রামের রায়চৌধুরী পরিবারের দুর্গাপুজো (durgapuja)।

মন্দিরের বর্তমান তন্ত্র ধারক সন্ন্যাসী গোস্বামী জানান তাঁদের পূর্বপুরুষ মহাজ্ঞানী পণ্ডিত ঘনশ্যাম গোস্বামী আজ থেকে সাড়ে তিন শ বছর আগে এ পুজো (durgapuja) শুরু করেন। কথিত আছে তৎকালীন জমিদার রাজনারায়ান বন্দ্যোপাধ্যায়, ঘনশ্যাম গোস্বামীর অভিশাপে অভিশপ্ত হয়েছিলেন। সেই অভিশাপ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য জমিদার ঘনশ্যাম গোস্বামীর গুরু বিরূপাক্ষ গোস্বামীর স্মরণাপন্ন হন। সাধক বিরূপাক্ষ গোস্বামীর পরামর্শমতো জমিদার রাজনারায়ান বন্দ্যোপাধ্যায় এই কুমারডিহি গ্রামে সিদ্ধ পুরুষ দ্বারা মা শক্তি দেবী দুর্গার (durgapuja) পুজো শুরু করেন। সাধক বিরূপাক্ষ গোস্বামী এই মায়ের মন্দিরে পাঁচমুন্ডির আসন প্রতিষ্টা করে তবেই শুরু করেন পুজো। সেই থেকেই সিদ্ধ পুরুষ ঘনশ্যাম গোস্বামীর বংশধরেরা আজও এই পুজোর প্রধান তান্ত্রধারক।

তিনি ও জানান,এই পুজো সাতটি কল্পের প্রথম কল্পের পুজো । এই রকম আচারে পুজো ভারত বর্ষের হাতে গোনা কয়েকটি পুজোর মধ্যে অন্যতম।

এই মুহূর্তে

x