16.3 C
Durgapur
Tuesday, November 24, 2020

জৌলুস হারালেও ঐতিহ্যে আজও অটল সারেঙ্গার পাল জমিদার বাড়ির দুর্গাপুজো

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ বদলেছে সময়, বদলেছে পরিস্থিতি। এখন আর ঝাড়বাতি জ্বলে না দালানে, বসে না জলসার আসর। জমিদারী চলে যাওয়ার সাথে সাথে জৌলুস হারিয়েছে সারেঙ্গার ধবনি গ্রামের পাল জমিদার বাড়ি ।

জৌলুস কমলেও আজও ভক্তি শ্রদ্ধা অটল থেকে পাল জমিদার বাড়িতে পূজিত হন মা দূর্গা। স্থানীয় নদী থেকে ঘট এনে হয় পুজোর (Durgapuja) সূচনা, নিয়ম নিষ্ঠা ভরে চলে পূজো। এই সময়টাতে দূর দূরান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা পরিবারের সদস্যরা এসে সমবেত হন পালবাড়িতে। পুজোর (Durgapuja) কটা দিন আগের মতোই গমগম করে জমিদারবাড়ি।

১৮৪১ খ্রীস্টাব্দে ধবনীর জমিদার স্বরুপ চন্দ্র পালের স্ত্রী শ্যামা সুন্দরী স্বপ্নাদেশ পেয়ে এই পুজোর (Durgapuja)সূচনা করেন। জমিদার স্বরুপ চন্দ্র পালের আদি বাড়ি ছিল বর্তমান বিষ্ণুপুরের গোঁসাইপুর গ্রামে। তিনি রাইপুরের রাজ বাড়িতে কাজ করতেন এবং রাজার বিশ্বাস ভাজন হওয়ায় তদানিন্তন রাজা তাঁর রাজত্বের বেশ কিছুটা এলাকা ছেড়ে দেন স্বরুপ চন্দ্র পালকে। তিনি জমিদারীর পত্তন করেন।

শোনা যায় সেই সময়ে এলাকায় বেশ দাপট ছিল পাল জমিদারদের। জমিদারের স্ত্রী শ্যামা সুন্দরী স্বপ্নাদেশ পেয়ে এই পুজোর সূচনা করেন। তৈরী হয় মন্দির, আটচালা । পুজোর (Durgapuja) সময় আটচালায়, মন্দিরে জ্বলতো ঝাড় লন্ঠন, বসতো জলসা, আসতো কলিকাতার বিখ্যাত যাত্রার দল । ধুমধাম আর হৈ-হুল্লোড় পড়ে যেত এলাকায়।

এখন সেসব অতীত। জমিদার বাড়ির নোনা ধরা দালান এখন প্রায় ধ্বংসের মুখে, আগাছা দখল করেছে পুরানো দালানবাড়ি, ঝাড়বাতিতে মরচে পড়েছে ।

তবে তাতে কি, ভক্তি শ্রদ্ধায় এতটুকুও টান পাড়েনি জমিদার বাড়ির পুজোয়। কষ্টের মধ্যেই এই কটাদিন মাতৃ আরাধনায় মন দেন পরিবারের সদস্যরা। বৈষ্ণব মতে এখানে পুজো (Durgapuja) হয় । প্রতি বছর না হলেও এখনো মাঝে মাঝে এলাকার যাত্রা শিল্পীদের নিয়ে যাত্রাপালার আয়োজন করে পুরনো ঐতিহ্যকে টিকিয়ে রাখেন পাল বাড়ির সদস্যরা ।

এই মুহূর্তে

ছট পুজোর মঞ্চে বিজেপি নেতাদের মাঝে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেতা ; বাড়ছে জল্পনা

নিজস্ব প্রতিনিধি ,দুর্গাপুর: দুর্গাপুর ব্যারাজের বিসর্জন ঘাটে বিজেপি (BJP) নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ তৃণমূল (TMC) নেতার উপস্থিতি ঘিরে জল্পনা । নতুন...

করোনা সংক্রমিত ৫ রাজ্যে বিশেষ প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে কেন্দ্র

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার খবর: দেশের একাধিক রাজ্যে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনা। সেই তালিকায় নাম রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে যেমন বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা তেমনই...

করোনা আতঙ্ক ! বাড়িতেই কৃত্রিম জলাশয় বানিয়ে ছট পালন করলেন ব্রতীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা, আসানসোল: করোনা আবহে অন্যান্য উৎসব অনুষ্ঠানের মতো ছট পুজো পালনেও নির্দিষ্ট বিধি নিষেধ আরোপ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। শারীরিক দূরত্ব বজায়, মাস্ক এবং...

টোল ট্যাক্স আদায় বন্ধের দাবিতে মেজিয়া টোলপ্লাজায় বিক্ষোভ

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ বাঁকুড়া-রানিগঞ্জ ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের ডাংমেজিয়া টোলপ্লাজায় টোল ট্যাক্স আদায় বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভে সামিল হল স্থানীয় বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবার রাতে আচমকাই টোল...

ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং-কে বুড়ো আঙ্গুল ! ছটপুজোর বাজারে উপচে পড়া ভিড়

নিজস্ব সংবাদদাতা, আসানসোল: করোনা প্রতিরোধে বহুল ব্যবহৃত শব্দ 'সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং’ এর বদলে এবার থেকে ‘ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং’ কথাটি ব্যবহার করার কথা জানিয়েছে কেন্দ্র। অর্থাৎ ,এখন...

আসানসোলের অপহৃত ব্যক্তিকে উদ্ধার করল বুদবুদ থানার পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, বুদবুদ: আসানসোল থেকে অপহরণ করে পালানোর সময় বুদবুদ থানার পুলিশের (Budbud Police) হাতে ধরা পড়ল অপহরণকারীরা। উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত ব্যক্তিকেও। বৃহস্পতিবার পশ্চিম...

কালীর শহর সোনামুখীতে আজ বিষাদের সুর

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ কালী-কার্তিকের শহর বলেই খ্যাত বাঁকুড়ার সোনামুখী (Sonamukhi) । বছরে দুই পুজোকে ঘিরেই উৎসবমুখর হয়ে ওঠে বাঁকুড়ার এই প্রাচীন পৌর শহর। পুজোর...

রাতারাতি প্রশাসক বদল সোনামুখী ও বিষ্ণুপুর পৌরসভায়

নরেশ ভকত ,বাঁকুড়াঃ রাতারাতি বাঁকুড়া জেলার দুই পৌরসভার প্রশাসক (Administrator) বদলকে কেন্দ্র করে জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক গুঞ্জন। কয়েক দিন আগেই সোনামুখী এবং...
x