29.5 C
Durgapur
Sunday, January 24, 2021

মহিলা সুরক্ষায় ‘পথসাথী’ ডিভাইস আবিষ্কার লাউদোহার যুবকের

সোমনাথ মুখার্জী,লাউদোহা: দেশ জুড়ে বাড়ছে মহিলাদের উপর নিগ্রহের ঘটনা । প্রতিনিয়ত ঘটছে ধর্ষণ ও খুনের ঘটনা। পারিপার্শ্বিক এই ধরনের ঘটনা থেকেই অভিনব আবিষ্কারের (Smart shoe) ভাবনা আসে বছর কুড়ির সৈয়দ মোশারফ হোসেনের ।

দুর্গাপুর ফরিদপুর ব্লকের তিলাবনি গ্রামের সাধারণ পরিবারের ছেলে সৈয়দ মোশারফ হোসেন বানিয়ে ফেলেছেন ‘ইন্ট্রিগ্রেটেড সিকুউরিটি কম এলার্ট সিস্টেম।

কিন্তু কি এই বস্তু ? মোশারফ জানান, মহিলা সুরক্ষার স্বার্থে আগেও অনেকে অনেক কিছু আবিষ্কার করেছেন ঠিকই কিন্তু দুষ্কৃতীরা মহিলাদের হাত-পা প্রথমেই বেঁধে ফেলায় পীড়াতা মহিলা তার সুরক্ষায় কাউকে ফোন করতে পারেন না বা কোনো সেফটি ডিভাইস তার কাছে থাকলেও সেটা ব্যবহার করতে পারেন না। সে কথা মাথায় রেখেই তিনি আবিষ্কার করেছেন “স্মার্ট জুতো”(Smart shoe) যা দেখতে আর পাঁচটা সাধারণ জুতোর মতোই । দামও সাধ্যের মধ্যেই। এই স্মার্ট জুতোর (Smart shoe) নাম ‘পথ সাথী’।

এই “স্মার্ট জুতোতে”(Smart shoe) রয়েছে জিপিএস এবং জি এস এম টেকনোলজি। জুতোর মধ্যে রাখা হয়েছে সেফটি ডিভাইস, যাতে দুষ্কৃতীরা ঘুণাক্ষরেও টের না পায়। সৈয়দ মোশারফ জানান ,কোনো মহিলা আক্রান্ত হলেই সেফটি সিস্টেমে থাকা পাওয়ার শক জেনারেটর দুষ্কৃতীকে প্রতি দুই সেকেন্ডে ১২০০ ভোল্টের শক দিতে থাকবে। একই সঙ্গে জিএসএম সিস্টেম পাঁচটি ফোন নাম্বারে অক্ষাংশ,দ্রাঘিমাংশ সহ জায়গার লোকেশন দিয়ে মেসেজ পাঠাতে সক্ষম । এছাড়াও প্রতি ৩০ সেকেন্ড অন্তর এসওএস কল যেতে থাকবে ওই পাঁচটি নম্বরে । এক্ষেত্রে পুলিশ ও চেনা পরিচিতের পাঁচটি নম্বর আগে থেকেই সেট করে রাখতে হবে ডিভাইসে।
দুষ্কৃতীরা মহিলাদের অন্যত্র তুলে নিয়ে গেলেও জুতোয় (Smart shoe) থাকা ডিভাইসের মাধ্যমে মহিলার অবস্থান সহজেই জানতে পারবেন উদ্ধারকারীরা। ফলে সহজেই তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার করতে পারবেন মহিলাদের।

ইতিমধ্যেই মোশারফ-এর এই আবিষ্কার দেখেছেন দুর্গাপুরের মহকুমা শাসক। বর্তমানে হুগলির ব্যান্ডেলের এক ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ইলেকট্রনিক্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং এর তৃতীয় বর্ষের বি-টেক পড়ুয়া মোশারফ।

তার আবিষ্কৃত এই ডিভাইসটি পেটেন্টের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর সাহায্য চান মোশারফ , এই রকম একটা ডিভাইস মহিলাদের সুরক্ষার জন্য দারুন কাজ করবে বলেও দাবি তার ।

এই মুহূর্তে

x

php shell shell indir hacklink ko cuce