28.5 C
Durgapur
Tuesday, January 19, 2021

মিড ডে-মিলের বরাদ্দ থেকে কাটছাঁট , অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ প্রধান শিক্ষকের (Head Master) বিরুদ্ধে মিড ডে মিলের চাল, ডাল, আলু কম দেওয়ার অভিযোগ এনে বিক্ষোভে সামিল হলেন অভিভাবক ও গ্রামবাসীরা। বিষ্ণুপুর যমুনাবাঁধ কলোনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঘটনা। জানা গেছে, যে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য সরকারি বরাদ্দ হিসেবে মিড-ডে মিলের ২ কেজি চাল ,২৫০ গ্রাম ডাল ,২ কেজি আলু এবং ৫০ এমএল সেনিটাইজার দেওয়ার কথা।


কিন্তু , অভিভাবকদের অভিযোগ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (Head Master) বাসুদেব শিকারি ছাত্র ছাত্রীদের মিড ডে মিলের সামগ্রী ওজনে কম দিচ্ছে । যেমন, ২ কেজির জায়গায় পড়ুয়াদের দেওয়া হচ্ছে দেড় থেকে ১ কেজি ৭০০ গ্রাম চাল, আলু ১ কেজি ৫০০ গ্রাম থেকে ৭০০ গ্রাম দেওয়া হচ্ছে । ২৫০ গ্রামের জায়গায় ডাল দেওয়া হচ্ছে ২০০ গ্রাম। সেনিটাইজার কোন ছাত্র-ছাত্রীকেই দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ । এই গরমিলের কারনে অভিভাবকরা অবর বিদ্যালয় পরিদর্শককের কাছে অভিযোগ জানান এবং বিষ্ণুপুর থানায় খবর দেন ।


অভিযোগের ভিত্তিতে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ ও এস আই ঈশিতা সেন তড়িঘড়ি বিদ্যালয়ে এসে ঘটনার তদন্ত শুরু করেন । জানা গেছে , বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (Head Master) বাসুদেব শিকারি সমস্ত কার্যকলাপ করেছেন বলে লিখিত স্বীকারপত্র দিয়েছেন।

এই অভিযোগ প্রসঙ্গে প্রধান শিক্ষক (Head Master) বাসুদেব শিকারি সাফাই দিয়ে বলেন, যে এতো চাল,ডাল আলু একজনের পক্ষে ওজন করা যায়না । অন্যের সাহায্য নিতে হয় । ওজন করার সময় মাটিতে পরে অনেক সামগ্রী নষ্ট হয়ে যায়। মোটা পলিথিন কেনার জন্য টাকাও মেকাপ করতে হয় । কোনো ভুলবশত ওজনের গরমিল হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অভিভাবক প্রশান্ত দে জানান, স্কুল থেকে পাওয়া চাল,ডাল,আলু এদিন বাড়িতে গিয়ে দেখে সরকারি বরাদ্দ থেকে ওজনে কম । তখনই এসে প্রধান শিক্ষককে প্রশ্ন করা হলে তিনি উত্তরে বলেন , যে রকম আসে সেরকম দেওয়া হয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের । অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের এই কার্যকলাপে ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা । প্রশাসনের কাছে প্রধান শিক্ষকের (Head Master) উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

এই মুহূর্তে

x

php shell shell indir hacklink