13 C
Durgapur
Tuesday, January 19, 2021

ICMR থেকে কোভিড ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য তৈরি থাকতে নির্দেশ দুর্গাপুরের চিরঞ্জিতকে

নিজস্ব সংবাদদাতা, জেলার খবর, দুর্গাপুর : প্রতীক্ষার অবসান ! বের হতে চলেছে COVID-19 এর প্রতিষেধক ভারতেই। আগামী ১৫ই আগস্ট স্বাধীনতা দিবসের দিনে ঔষধ প্রস্তুতকারক সংস্থা  “ভারত বায়োটেক”এর হাত  ধরে বাজারে আসতে চলেছে “কোভ্যাকসিন” নামক ভ্যাকসিনটি করোনা মহামারীর প্রতিষেধক হিসাবে । ICMR ও “ভারত বায়োটেক” যৌথভাবে এই উদ্দ্যোগ নিয়েছে । আগামী ৭ই জুলাই থেকে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল মানবশরীরে প্রয়োগের কাজ শুরু করা হবে । প্রায় ১৩টি সংস্থা কে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে ট্রায়ালের স্থান হিসেবে ।

27f493d3 f2e9 454c aa66 6407e90f2db0

দুমাস আগে দুর্গাপুরের স্কুলশিক্ষক ও সমাজসেবী চিরঞ্জিত ধীবর নিজের দেহ উৎসর্গ করেন কোভিড ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য । তিনিই পশ্চিমবঙ্গের প্রথম ব্যক্তি যিনি  আবেদন জানিয়েছিলেন ICMR কে । সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে চিরন্জিত বাবুর সাথে যোগাযোগ করা হয় । ICMR এর বিজ্ঞানী ড:সমীরণ পান্ডা চিরঞ্জিতকে মানসিক ভাবে তৈরি থাকতে বলেন । যে কোনো সময় অফিসিয়াল লেটার এ কল আসতে পারে । তবে প্রথমেই কোভিড এ আক্রান্ত ব্যক্তির উপর প্রয়োগের পর নন-কোভিড ব্যক্তিদের উপর এর প্রয়োগ হবে । পশ্চিমবঙ্গের নিকটবর্তী ICMR অনুমোদিত ট্রায়াল সেন্টার ওড়িশার ভুবনেশ্বরের  “The IMS “ও “SUM” হসপিটালে চিরন্জিত বাবুকে যেতে হতে পারে বলে জানা গেছে । ইতিমধ্যেই কয়েকশো আবেদন জমা পড়েছিল ICMR এর কাছে ।তবে কাদের ডাকা হবে তা ICMR ও  “ভারত বায়োটেক” সংস্থার উপরে নির্ভর করছে ।চিরঞ্জিত ধীবর নামে এই শিক্ষকের বয়স ৩০ বছর। পেশায় স্কুল শিক্ষক । পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরের কাঁকসা ব্লকের মানিকাড়া  প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ান তিনি। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের পুরোনো স্বয়ং সেবক । সঙ্ঘের অনুপ্রেরণায় সেবার কাজে বরাবরই অগ্রণী ভূমিকা নেন ।

239fe611 679f 4c0a ad64 728bbba5d4d4

লকডাউন এর প্রথম পর্বে ইতিমধ্যেই সঙ্ঘের সেবাকাজের সাথে যুক্ত হয়ে টানা ২১দিন দূর্গাপুর এর বিভিন্ন জায়গায়  দুবেলা প্রায় ১৪০০০ অভুক্ত মানুষএর মুখে  অন্ন তুলে দিয়েছেন ।  সেবা ভারতীর উদ্দ্যোগে করোনা যোদ্ধা পুলিশকর্মী সাফায়কর্মী দের প্রায় এক মাস ধরে চা বিস্কুট দিয়ে বিশেষ সম্মান জানানোর কাজে অগ্রণী ভূমিকা নেন চিরঞ্জিত । অন্যদিকে গান গেয়ে ভাইরাল হওয়া গরীব আদিবাসী প্রতিভাবান শিল্পী চাঁদমনি হেমব্রমকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে বলিউড সঙ্গীত জগতে নিয়ে আসে এই দরদী শিক্ষক । মানুষের বিপদে আপদে ঝাপিয়ে পড়া চিরঞ্জিত একসময় রাজনৈতিক রোষানলে পড়েন ।পরিবারের উপর সেই ঢেউ আছড়ে পড়ে । গভীর ষড়যন্ত্রের শিকার হন তিনি । তবুও নিজের উপর আস্থা রেখে নির্ভীক ভাবে সমাজসেবা করতে থাকেন তিনি । তার মধ্যে অতিবিরল হল মানব কল্যাণে তার দেহদান ।আপামর জনতা চিরঞ্জিতকে তার আত্মত্যাগের জন্য কুর্নিশ জানাচ্ছেন ও সাফল্য ।

এই মুহূর্তে

x