16.3 C
Durgapur
Tuesday, November 24, 2020

জৌলুস বাড়লেও ঐতিহ্যে অবিচল, সাবেক রীতিতে পূজিত হন শ্যামারূপা

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার খবর: পেরিয়ে গিয়েছে ১২০০ বছর। পাল্টেছে পুজোর আবহ। জৌলুস বেড়েছে বই কমেনি। প্রদীপের আবছা আলোর বদলে দেবীর আরাধনা হয় এখন বিজলি বাতির ঝলমলে আলোয়। পোড়ামাটির ইঁট বসানো এবড়ো খেবড়ো মেঝের বদলে মন্দির প্রাঙ্গণ এখন মার্বেলে মোড়া। মন্দিরের সংকীর্ণ গর্ভগৃহে বাতানুকুল ঠাণ্ডা হাওয়া।

পারিপার্শ্বিক বদল হলেও পশ্চিমবঙ্গ-ঝাড়খণ্ড সীমানায় অবস্থিত কল্যাণেশ্বরী মন্দিরে (Kalyaneshwari Temple) এখনও পুরনো রীতি মেনেই পুজো হয়ে আসছে, এমনটাই দাবি মন্দিরের প্রধান সেবাইতের। কল্যাণেশ্বরী মন্দিরে (Kalyaneshwari Temple) কোনও মূর্তি পুজো হয় না। রয়েছে একটি বড় পাথর। তার তলায় আছে একটি অদৃশ্য গুহা। পাথরের এক কোনায় একটি গর্ত রয়েছে। মন্দিরে আসা ভক্তদের বিশ্বাস, ওই গর্ত স্পর্শ করলেই দেবীর আশীর্বাদ লাভ করবেন। পূর্ণ হবে মনস্কামনা। এই বিশ্বাসেই বিগত ১২০০ বছর ধরে দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে মন্দির প্রাঙ্গণে আসছেন ভক্তরা।

বছরের অন্য সময় সন্ধ্যা ৬ টায় বন্ধ হয়ে যায় মন্দিরের (Kalyaneshwari Temple) দরজা। কিন্তু কালীপুজোর সময় সারা রাত পুণ্যার্থীদের জন্য খোলা থাকে দরজা। দিলীপবাবু আরও জানান, গত ১২০০ বছর ধরে মন্দিরে পুজো আসে পুরুলিয়ার কাশিপুর রাজ পরিবার থেকে। মন্দিরের প্রাচীন তথ্য থেকে জানা গিয়েছে, খ্রিস্টিয় দ্বাদশ শতাব্দীতে কাপালিক দেবদাস চট্টোপাধ্যায় কালী সাধনা করার জন্য এখানে এসেছিলেন।

সেই সময় ছিল ঘন জঙ্গল। শোনা যায়, রাজা বল্লাল সেন ছিলেন এই কাপালিকের ভক্ত। কাপালিকের নির্দেশ মেনে বল্লাল সেন অধুনা শ্রবনপুরে একটি মন্দির নির্মাণ করেন। সেখানেই বহু বছর আরাধনা হয় দেবী শ্যামারূপার।

জনশ্রুতি, একদিন কল্যাণেশ্বরীর কাছে প্রায় ফুট একটি গভীর গর্তে দেবী আশ্রয় নেন। তখন থেকেই দেবী ওই জায়গাতেই পূজিতা। এলাকাবাসীর বিশ্বাস, শ্রবনপুরের ওই মন্দিরের আশপাশে বসতি গড়ে উঠতে শুরু করে। কোলাহলে রুষ্ট হন দেবী। তাই নিরিবিলি জায়গা কল্যাণেশ্বরীতে উঠে আসেন তিনি। এখন কালীপুজোর দিন বিশেষ পুজো হয়। কার্তিকী অমাবস্যা তিথিতে নিষ্ঠা সহকারে দেবীর পুজো হয়।

এই মুহূর্তে

ছট পুজোর মঞ্চে বিজেপি নেতাদের মাঝে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেতা ; বাড়ছে জল্পনা

নিজস্ব প্রতিনিধি ,দুর্গাপুর: দুর্গাপুর ব্যারাজের বিসর্জন ঘাটে বিজেপি (BJP) নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ তৃণমূল (TMC) নেতার উপস্থিতি ঘিরে জল্পনা । নতুন...

করোনা সংক্রমিত ৫ রাজ্যে বিশেষ প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে কেন্দ্র

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার খবর: দেশের একাধিক রাজ্যে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনা। সেই তালিকায় নাম রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে যেমন বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা তেমনই...

করোনা আতঙ্ক ! বাড়িতেই কৃত্রিম জলাশয় বানিয়ে ছট পালন করলেন ব্রতীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা, আসানসোল: করোনা আবহে অন্যান্য উৎসব অনুষ্ঠানের মতো ছট পুজো পালনেও নির্দিষ্ট বিধি নিষেধ আরোপ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। শারীরিক দূরত্ব বজায়, মাস্ক এবং...

টোল ট্যাক্স আদায় বন্ধের দাবিতে মেজিয়া টোলপ্লাজায় বিক্ষোভ

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ বাঁকুড়া-রানিগঞ্জ ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের ডাংমেজিয়া টোলপ্লাজায় টোল ট্যাক্স আদায় বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভে সামিল হল স্থানীয় বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবার রাতে আচমকাই টোল...

ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং-কে বুড়ো আঙ্গুল ! ছটপুজোর বাজারে উপচে পড়া ভিড়

নিজস্ব সংবাদদাতা, আসানসোল: করোনা প্রতিরোধে বহুল ব্যবহৃত শব্দ 'সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং’ এর বদলে এবার থেকে ‘ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং’ কথাটি ব্যবহার করার কথা জানিয়েছে কেন্দ্র। অর্থাৎ ,এখন...

আসানসোলের অপহৃত ব্যক্তিকে উদ্ধার করল বুদবুদ থানার পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, বুদবুদ: আসানসোল থেকে অপহরণ করে পালানোর সময় বুদবুদ থানার পুলিশের (Budbud Police) হাতে ধরা পড়ল অপহরণকারীরা। উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত ব্যক্তিকেও। বৃহস্পতিবার পশ্চিম...

কালীর শহর সোনামুখীতে আজ বিষাদের সুর

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ কালী-কার্তিকের শহর বলেই খ্যাত বাঁকুড়ার সোনামুখী (Sonamukhi) । বছরে দুই পুজোকে ঘিরেই উৎসবমুখর হয়ে ওঠে বাঁকুড়ার এই প্রাচীন পৌর শহর। পুজোর...

রাতারাতি প্রশাসক বদল সোনামুখী ও বিষ্ণুপুর পৌরসভায়

নরেশ ভকত ,বাঁকুড়াঃ রাতারাতি বাঁকুড়া জেলার দুই পৌরসভার প্রশাসক (Administrator) বদলকে কেন্দ্র করে জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক গুঞ্জন। কয়েক দিন আগেই সোনামুখী এবং...
x