33.7 C
Durgapur
Monday, June 14, 2021

মন্দিরনগরী বিষ্ণুপুরের ঐতিহাসিক লালবাঁধের পাড়ে লাইট এবং সাউন্ড ( Light and sound)

মন্দিরনগরী বিষ্ণুপুরের ঐতিহাসিক লালবাঁধের পাড়ে লাইট এবং সাউন্ড (Light and sound)

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ মন্দিরনগরী বিষ্ণুপুরের ঐতিহাসিক লালবাঁধের পাড়ে লাইট (Light and sound)আগেই বসেছিল। এবার তার সঙ্গে সংযোজিত হতে চলেছে সাউন্ড (Light and sound)। দুইয়ে মিলে আগামী পর্যটন মরসুমের কথা মাথায় রেখে লাইট এন্ড সাউন্ডে সেজে উঠতে চলেছে মল্লরাজা রঘুনাথ সিংহের সাধের লালবাঁধ। সারাদিন বিষ্ণুপুরের এ মন্দির থেকে সে মন্দির ঘোরাঘুরির পর ক্লান্ত শরীরকে জুড়িয়ে নিতে লালবাঁধের পাড়ে হাজির হন বহু পর্যটক। দিনান্তে সাধারণ মানুষও আড্ডা জমান সেখানে। সম্প্রতি মজে যাওয়া লালবাঁধ নতুন করে খনন করে সেখানে নৌকাবিহারের ব্যবস্থা করে স্থানীয় প্রশাসন। বাঁধানো হয় লালবাঁধের পাড়। ঐতিহাসিক যে স্থান একসময় সূর্য ডুবলেই অন্ধকারে ডুবে যেত আর সেই আঁধারে চলত নানান অসামাজিক কাজ। এখন সেখানে অর্থাৎ লালবাঁধের পাড় জুড়ে লাগানো হয়েছে এলইডি লাইট। এখন সেখানে আলোর ছটায় বাজবে রবীন্দ্রনাথ সঙ্গীত আর বিষ্ণুপুর ঘরানার ধ্রুপদ সঙ্গীত। সোমবার বিকালে লালবাঁধ পরিদর্শন করে তেমনটাই জানালেন বিষ্ণুপুর পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান দিব্যেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে ছিলেন বিষ্ণুপুর মহকুমাশাসক অনুপ কুমার দত্ত ও পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের সদস্য গৌতম গোস্বামী। এদিন দিব্যেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন ‘বিষ্ণুপুর তাঁর নিজের গরিমা নিয়ে গর্বিত। এখানের টেরাকোটার মন্দির, সঙ্গীত ঘরানা, বালুচরি শাড়ী, পোড়ামাটির ঘোড়া শঙ্খ শিল্প পৃথিবী বিখ্যাত। লালবাঁধেরও একটা নিজস্ব ইতিহাস রয়েছে। লালবাঁধ ছাড়াও বিষ্ণুপুরে আরও বেশ কয়েকটি জলাধার রয়েছে। আমরা প্রশাসন ও পুরসভার পক্ষ থেকে লালবাঁধ সহ অন্যান্য বাঁধগুলির সৌন্দর্যায়নের পরিকল্পনা নিয়েছি। লালবাঁধ সংষ্কার করে আগেই পাড় বরাবর লাইট লাগানো হয়েছে। বোটিং হচ্ছে। এবার এখানে সাউন্ড সিস্টেমের মাধ্যমে মানুষদের বিনোদন দেওয়া হবে। তাছাড়া যমুনাবাঁধও সংষ্কার করে সাজিয়ে তোলা হবে। সেটা কিছুটা সময় লাগলেও লাল বাইয়ের ইতিহাস বয়ে নিয়ে যাওয়া এই লালবাঁধের পাড়ে লাইটের সঙ্গে সাউন্ড খুব তাড়াতাড়ি লাগানো হবে’।

এই মুহূর্তে

x