28.4 C
Durgapur
Sunday, August 1, 2021

রাহুল-প্রিয়াঙ্কা পৌঁছতেই ‘দাবাং’ ভূমিকায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার ঘটনায়: হাথরাস গণধর্ষণকাণ্ডের ক্ষোভের আগুনে ফুঁসছে গোটা দেশ। বিজেপিকে কোণঠাসা করতে যোগী সরকারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদে সামিল হয়েছে বিজেপি বিরোধীরা।

বৃহস্পতিবার নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে উত্তরপ্রদেশের হাথরসে যাওয়ার পরিকল্পনা নেন কংগ্রেসের মহাসচিব প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এবং প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) । তার আগেই এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে দেওয়া হয়। সিল করে দেওয়া হয় সীমানা। কংগ্রেস নেতাদের আটকাতে সক্রিয় হয়ে ওঠে যোগী রাজ্যের ‘ঘুমিয়ে থাকা’ পুলিশ।

দিল্লি নয়ডা সীমান্তেই আটকে দেওয়া হয় রাহুল-প্রিয়াঙ্কার গাড়ি । এরপর নয়ডা থেকে হাথরাস পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তারা । যদিও কিছুদূর যেতেই ফের তাদের আটকানো হয়। এই নিয়ে পুলিশে সঙ্গে বচসা বাঁধলে দাবাং ভূমিকা নেয় পুলিশ । ধ্বস্তাধস্তির সময় রাহুল গান্ধীকে (Rahul Gandhi) ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয় পুলিশ । তুমুল ধাক্কাধাক্কির পর গ্রেফতার করা হয় রাহুল প্রিয়াঙ্কাকে ।

করোনা যুক্তিকে সামনে রেখে এই প্রসঙ্গে প্রশাসনের সাফাই, এলাকাকে কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষণা করেছে যোগী সরকার। তাই এমন অবস্থায় বাইরের কাউকে গ্রামে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যাবে না।

গ্রেফতারি প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) বলেন, আমি একা যেতে চেয়েছি। একা গেলে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করা হয় না। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের উদ্দেশ্যে তিনি টুইট করে লেখেন, “দুঃখের সময়ে প্রিয়জনদের একা রাখা হয় না। নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করা, সরকারকে ভয় পাওয়াচ্ছে । এত ভয় পাবেন না, মুখ্যমন্ত্রী!” প্রিয়াঙ্কা বলেন ‘উন্নাওয়ের ঘটনার পরও এতটুকু বদল হয়নি উত্তরপ্রদেশের।’

এই মুহূর্তে

x