Tuesday, July 7, 2020
Home রাজ্য কলকাতা কেন্দ্রীয় দলকে নিয়ে ব্যস্ত বাঙুর, সেই ফাঁকে ‘হাওয়া খেতে’ বেরিয়ে পড়লেন করোনা...
- Advertisment -Add 22 1
- Advertisment -Golden

RECENT POSTS

অবশেষে শহীদ পরিবারের বাড়িতে সাংসদ শতাব্দী, কাজের চাপে আসতে পারেননি, অজুহাত সাংসদের

শুভময় পাত্র, বীরভূম, জেলার খবর : দেরিতে হলেও শহীদ রাজেশ ওরাং এর পরিবারের খবর নিতে এই বীর শহীদের বাড়িতে এসে উপস্থিত হলেন...

অনুব্রতর নির্বাচনী প্রচারে এবার হাতিয়ার আইটি সেল

শুভময় পাত্র, বীরভূম, জেলার খবর : রাজ্য রাজনীতিতে বিজেপি যেভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে তাতে কিছুটা হলেও কপালে ভাঁজ পড়েছে বর্তমান শাসক দলের...

আমফান বিধ্বস্তের পাশে সাহায্যের হাত বীরভূম জেলা পুলিশের

শুভময় পাত্র , বীরভূম: আমফান বিধ্বস্তের পাশে এবার বীরভূম জেলা পুলিশ (Birbhum District Police)। বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বের পাশাপাশি সারাদেশে ও রাজ্যে যেভাবে...

অবশেষে বেহাল মেজিয়া রেল সেতু মেরামতের আশ্বাস দিল ডিভিসি

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে মেজিয়া রেল সেতু সংস্কারে উদ্যোগী হল দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন (DVC) । মেজিয়া থার্মাল পাওয়ার স্টেশনের...

রাজ্যে মাছের চাহিদা মেটাতে উদ্যোগী রাজ্যের মৎস্য দপ্তর

শুভময় পাত্র , বীরভূম : আর ভিন রাজ্য থেকে নয়, এবার মাছের চাহিদা মেটাতে বিশেষ তৎপর হয়ে উঠেছে রাজ্য মৎস্য দপ্তর (Department...

রেল বেসরকারী করণের প্রতিবাদে মন্ত্রী ও পৌরপ্রধানের বিক্ষোভ

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ মঙ্গলবার বিষ্ণুপুর স্টেশনে রেল বেসরকারী করণের (privatization) প্রতিবাদে রাজ্যের মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা ও বিষ্ণুপুর পৌরসভার পৌর প্রধান এবং বিষ্ণুপুর...

ফের কাঁকসা থানা ঘেরাও করল আদিবাসীরা

মনোজিৎ গোস্বামী, কাঁকসা: গতকালের পর আজ ফের কাঁকসা থানা ঘেরাও করল আদিবাসীরা (Tribals) । সোমবার অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে গভীর রাত পর্যন্ত থানা...

রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত ইন্দাস , এলাকায় বোমাবাজি

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে (Political Clash) উত্তপ্ত হল বাঁকুড়ার ইন্দাস থানার হেয়াৎনগর গ্রাম । সোমবার সন্ধে থেকে দুপক্ষের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে...
- Advertisment -ZK ADD SQ 600x500 R300

কেন্দ্রীয় দলকে নিয়ে ব্যস্ত বাঙুর, সেই ফাঁকে ‘হাওয়া খেতে’ বেরিয়ে পড়লেন করোনা রোগী

সবে তখন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এম আর বাঙুর হাসপাতালে ঢুকেছে। হঠাৎ হাসপাতালের মেন গেটের ভিতর থেকে ভেসে এল কথাগুলো, ‘‘সরে যান, উনি করোনা পজিটিভ পেশেন্ট। সবাই সরে যান।’’ আতঙ্কে তত ক্ষণে হুড়োহুড়ি পড়ে গিয়েছে। পড়িমরি করে যে যার মতো ছিটকে যাচ্ছেন। তখনই দেখা গেল এক প্রৌঢ়কে। পরনে সাদা স্ট্রাইপ দেওয়া কালো ট্র্যাক প্যান্ট, উপরে সাদা-কালো ছাপের টি-শার্ট।

বৃহস্পতিবার বেলা তখন দেড়টা। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল আসায় হাসপাতাল জুড়ে সাজ সাজ রব। চিকিৎসক থেকে হাসপাতালকর্মী— সকলেই ব্যস্ত। তার মধ্যেই হাসপাতালের ওয়ার্ড থেকে বেরিয়ে পড়েন ওই প্রৌঢ়। প্রায় সকলের অলক্ষ্যেই তিনি হাসপাতালের চৌহদ্দি পেরিয়ে বেরিয়ে পড়েন দেশপ্রাণ শাসমল রোডে। তার পর হাসপাতালের গা ঘেঁষে ফুটপাথ ধরে তিনি হাঁটতে শুরু করেন টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনের দিকে।

হাসপাতালের ওয়ার্ড ছেড়ে ওই প্রৌঢ়ের বেরিয়ে যাওয়া প্রথমে কেউ লক্ষ্যই করেনি। মেন গেটের বাইরে রোগীর পরিজনদের সঙ্গে কয়েকজন হাসপাতালকর্মীও দাঁড়িয়ে ছিলেন। কিছু ক্ষণ ধরেই সেখানে কয়েক জন আলোচনা করছিলেন, তাঁদের রোগীকে ওয়ার্ডে পাওয়া যাচ্ছে না। সম্প্রতি করোনা পরীক্ষায় সেই রোগীর পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। ওই প্রৌঢ়কে এমন পোশাকে ও ভাবে হেঁটে যেতে দেখে হাসপাতালকর্মীদের সন্দেহ হয়। তাঁরাই প্রথমে পথ আটকান ওই প্রৌঢ়ের।হাসপাতালের কর্মীদের প্রশ্নের মুখে পড়েই ফের হাসপাতালের দিকে হাঁটা দেন ওই প্রৌঢ়। তত ক্ষণে খবর পৌঁছেছে হাসপাতালের ভিতরে। রোগী বেরিয়ে যাওয়া নিয়ে তত ক্ষণে হুলস্থুল অবস্থা সেখানে। পিপিই পরেই কয়েক জন হাসপাতাল কর্মী ছুটে আসেন বাইরে। যদিও তখনও নির্বিকার ওই প্রৌঢ়। হাসপাতালকর্মীরা তখন গেটের মুখে থাকা লোকজনকে সাবধান করছেন, ‘‘সরে যান, উনি করোনা পজিটিভ পেশেন্ট।”

সকলেই আতঙ্কে রাস্তা ছেড়ে সরে যান। এক স্বাস্থ্যকর্মী প্রশ্ন করেন ওই প্রৌঢ়কে, ‘‘কোথায় যাচ্ছিলেন?’’ নির্বিকার মুখের জবাব আসে, ‘‘একটু হাওয়া খেতে যাচ্ছিলাম। হাসপাতালে ভাল লাগছিল না। দমবন্ধ লাগছে। তাই একটু বেরিয়েছিলাম। যাচ্ছিলাম টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনের দিকে।’’ ওই প্রৌঢ় ওয়ার্ডে ফিরে যাওয়ার পরেই হাসপাতালের মেন গেট-সহ গোটা চত্বর জীবাণুমুক্ত করার কাজ করা হয়।

গেটের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা এক হাসপাতালকর্মী বলেন, ‘‘আমরা কয়েক জন বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলাম। হঠাৎ দেখি ওই ব্যক্তি বাইরে বেরিয়ে আসছেন। আমরা তাঁকে ডেকে কথা বলে জানতে পারি, তিনি করোনা আক্রান্ত। তার পরেই হাসপাতালের ভিতরে খবর পাঠাই। ভদ্রলোককে ফের ওয়ার্ডে ফেরত পাঠানো হয়।’’

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে সরকারি ভাবে কোনও মন্তব্য করতে চাননি। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক হাসপাতাল কর্তার দাবি, ‘‘কেউ পালানোর চেষ্টা করেছে বলে জানা নেই। শুনেছি, এক প্রৌঢ়কে অ্যাম্বুল্যান্সে করে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। অ্যাম্বুল্যান্স থেকে নামানোর পরেই তিনি গেটের বাইরে বেরিয়ে যান। তাঁকে ফের হাসপাতালে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।’’ তবে প্রৌঢ়কে ঢোকানোর পর কেন গোটা হাসপাতাল চত্বর কেন জীবাণুমুক্ত করা হল, তার কোনও ব্যাখ্যা দিতে রাজি হননি ওই কর্তা।

- Advertisment -ZK ADD SQ 600x500 R300

Most Popular

অবশেষে শহীদ পরিবারের বাড়িতে সাংসদ শতাব্দী, কাজের চাপে আসতে পারেননি, অজুহাত সাংসদের

শুভময় পাত্র, বীরভূম, জেলার খবর : দেরিতে হলেও শহীদ রাজেশ ওরাং এর পরিবারের খবর নিতে এই বীর শহীদের বাড়িতে এসে উপস্থিত হলেন...

অনুব্রতর নির্বাচনী প্রচারে এবার হাতিয়ার আইটি সেল

শুভময় পাত্র, বীরভূম, জেলার খবর : রাজ্য রাজনীতিতে বিজেপি যেভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে তাতে কিছুটা হলেও কপালে ভাঁজ পড়েছে বর্তমান শাসক দলের...

আমফান বিধ্বস্তের পাশে সাহায্যের হাত বীরভূম জেলা পুলিশের

শুভময় পাত্র , বীরভূম: আমফান বিধ্বস্তের পাশে এবার বীরভূম জেলা পুলিশ (Birbhum District Police)। বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বের পাশাপাশি সারাদেশে ও রাজ্যে যেভাবে...

অবশেষে বেহাল মেজিয়া রেল সেতু মেরামতের আশ্বাস দিল ডিভিসি

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে মেজিয়া রেল সেতু সংস্কারে উদ্যোগী হল দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশন (DVC) । মেজিয়া থার্মাল পাওয়ার স্টেশনের...
error: © All Rights Reserved. Powered By Garai Vision.