20.4 C
Durgapur
Wednesday, January 20, 2021

রাজ্য কর্মচারী ফেডারেশনের দায়িত্ব হারালেন শুভেন্দু অধিকারী, নিন্দার ঝড় অনুরাগীদের

ডিজিটাল ডেস্ক, জেলার খবর : মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর (suvendu adhikari) ক্ষমতা কিছুটা হলেও খর্ব করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। রাজ্য কর্মচারী ফেডারেশনের দায়িত্ব থেকে মন্ত্রীকে (suvendu adhikari) সরান হয়েছে বলে সূত্রের খবর। এই সিদ্ধান্ত সোমবার তৃণমূল ভবনে এক বৈঠকে নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। সূত্র অনুযায়ী জানা গেছে ওই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এককভাবে দিব্যেন্দু রায়কে। আর এতেই বেজায় চটেছেন মন্ত্রীর অনুগামীরা। শীর্ষ নেতৃত্বের এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ তারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তাঁরা। তবে এ বিষয়ে মন্ত্রীর (suvendu adhikari) কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পাওয়া যায়নি। তবে সূত্রের খবর, ২০২১ সালের নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এই বদলের নির্দেশ দিয়েছেন খোদ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, কিছুদিন ধরেই তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে রাজ্যের একাধিক দফাফতরের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর (suvendu adhikari) মন কষাকষি চলছে। লকডাউনের সময় দলীয় কর্মসূচিতে তাই শুভেন্দুকে বিশেষ দেখা যায়নি। এমনকী, কিছুদিন আগে জেলার যুব তৃণমূল সভাপতির পদ থেকে শুভেন্দুর অনুগামী তথা ময়নার বিধায়ক সংগ্রাম কুমার দলুইকেও সরিয়ে দেওয়া হয়। বদলে একেবারে আনকোরা পার্থ মাইতি ওই পদে বসেন। এরপরই অনুগামীদের কাছে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন সংগ্রাম। বলেছিলেন, “বকলমে এটা দাদার অপমান।” এমনকি ঘনিষ্ঠদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন শুভেন্দুও বলে সূত্রের খবর। এরপর ফের ধাক্কা। এবার রাজ্য কর্মচারীর মেন্টর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল তাঁকে। বদলে তমলুকের শ্রমিক নেতাকে সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়।

জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে তৃণমূল ভবনে বৈঠকে বসেছিলেন সুব্রত বক্সী ও পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেখানেই এই ৪১ জনের কমিটি ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই কমিটিতে চিফ মেন্টর পদে ছিলেন শুভেন্দু। সঙ্গে আরও তিনজন আহ্বায়ক ছিলেন। কিন্তু বর্তমানে একক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দিব্যেন্দু রায়কে। প্রসঙ্গত, এই সরকারি আধিকারিক দিব্যেন্দু রায় কমিটির আহ্বায়ক পদে ছিলেন। বাকি দুজন সৌম্য ঘোষ ও স্বপন ঘড়ুই অবসর নিয়ে নিয়েছেন। ফলে কমিটির অনেকটাই নিষ্ক্রিয় হয়েছিল। জেলাস্তরে কমিটি গঠনের কাজ থমকে ছিল। দিব্যেন্দু রায় জানিয়েছেন, “জেলায়া জেলায় কর্মচারীদের সুবিধা-অসুবিধার দিকে নজর রাখতে কমিটি গঠন হবে। নতুন উদ্যোগ নিয়ে ঝাঁপানো হবে। “

কিন্তু কেন সরানো হল শুভেন্দু অধিকারীকে? সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই কর্মচারী ফেডারেশনের বৈঠকে গরহাজির থাকছিলেন মন্ত্রী। ফেডারেশনের কাজে বিশেষ আগ্রহ দেখাচ্ছিলেন না। যা নিয়ে ফেডারেশনের সদস্যরা রীতিমতন অসন্তুষ্ট ছিলেন মন্ত্রীর উপর। এরপরই তাঁকে ওই পদ থেকে সারানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু রাজনৈতিক মহলের মতে এর পিছনে অবশ্যই অন্য কোন উদ্দেশ্য আছে।

এই মুহূর্তে

x

php shell shell indir hacklink