24 C
Durgapur
Tuesday, April 20, 2021

সরক‍ারি তথ্যে মৃত , জীবিত প্রমানে ধর্নায় বসলো পরিবার

সোমনাথ মুখার্জী, অন্ডাল : একই পরিবারের তিন সদস্যকে মৃত দেখিয়ে রেশন কার্ড বাতিল করার অভিযোগ উঠেছে অন্ডাল ব্লকের খাদ্য দপ্তরের বিরুদ্ধে । এরপরেই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি জানিয়েছে বঞ্চিত পরিবার । অন্ডাল ব্লকের মদনপুর পঞ্চায়েতের বাসকা এলাকার ঘটনা

বিডিও ঋত্বিক হাজরা বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেওয়া সত্ত্বেও বুধবার জীবিত প্রমানে (Proof) অতীত ঘোষ তার স্ত্রী ছেলেকে সাথে নিয়ে অন্ডাল বিডিও অফিস গেটের সামনে ধর্নায় বসেন । অতীত বাবুর পরিবারের সাথে ছিলেন এলাকার সিপিএম নেতা কর্মী ও সমর্থকরা ।

অতীত বাবুর অভিযোগ , তিনি রাজনৈতিক চক্রান্তের শিকার । তিনি বাম সমর্থক হওয়ার কারণেই তৃণমূলের উস্কানিতে এই চক্রান্ত । পেশায় গৃহশিক্ষক অতীতবাবুর স্ত্রী সঙ্গীতা দেবী জানান, স্বামী গৃহশিক্ষকতা করে সংসার চালান । করোনার কারণে প্রাইভেট টিউশন পড়ানো বন্ধ রয়েছে । এই অবস্থায় রেশনের চাল গমই আমাদের ভরসা । সেটা বন্ধ হয়ে গেলে না খেতে পেয়ে মরতে হবে পরিবারকে।

এলাকার তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি অজয় পাত্র যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন কার্ড বাতিলের পেছনে রাজনৈতিক কোনো ব্যাপার নেই । কম্পিউটার তথ্যে কোন কারনে ভুল হয়ে থাকতেই পারে । সংশোধনের উপায় রয়েছে । বিডিও সাহেব বিষয়টি দেখছেন, পরিবারটি যাতে রেশন থেকে বঞ্চিত না হয় সেটা আমরাও দেখছি । সমস্যার সমাধানে সাহায্য না করে অযথা পরিবারটিকে নিয়ে সিপিএম রাজনীতি করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

অতীত ঘোষের পরিবারের ৩ সদস্যের রেশন কার্ড সম্প্রতি বাতিল হয়ে যায়। কেন কার্ডগুলি বাতিল হল সে বিষয়ে স্থানীয় রেশন ডিলারের কাছে কোনো সদুত্তর না পাওয়ায় অতীতবাবু সোমবার কার্ডগুলি নিয়ে অন্ডাল ব্লক এর খাদ্যদপ্তরে যান । অফিসে কর্মরত আধিকারিক কম্পিউটারের তথ্য দেখে অতীতবাবুকে জানান যাদের নামে কার্ড গুলি রয়েছে তারা মারা যাওয়ায় কার্ড বাতিল করা হয়েছে ।

বিষয়টি জানার পর স্বাভাবিক ভাবেই অবাক যে যান সকলে , অতীত বাবু, তার স্ত্রী ও ছেলে সকলেই জীবিত কিন্তু অফিসের কম্পিউটার তথ্যে তাদের মৃত দেখানো হচ্ছে ! কে বা কারা এই কাণ্ড ঘটিয়েছে ওই আধিকারিককে সে বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলেও কোনো উত্তর পাননি তিনি। গতকাল অন্ডালের বিডিও ঋত্বিক হাজরার কাছেও সমস্যায় কথা জানান অতীতবাবু , বিডিও বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন। সেই আশ্বাসের ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই এদিন বিডিও অফিসের সামনে জীবিত প্রমানে (Proof) সপরিবারে ধর্নায় বসেন অতীতবাবু।

এই মুহূর্তে

x