29 C
Durgapur
Friday, May 7, 2021

বিশ্বভারতী এবার বিশ্ব ভারতে

শুভময় পাত্র, বীরভূম: বিশ্বভারতী- না এবার আর শুধু শান্তিনিকেতনে নয় , লালমাটি-শাল-পিয়ালের দেশ ছাড়িয়ে কবিগুরুর প্রিয় বিশ্বভারতী (Visva Bharati)এবার হিমালয়ের কোলে । জেলা , রাজ্যের সীমানা পেরিয়ে এবার দ্বিতীয় বিশ্বভারতী তৈরী হচ্ছে উত্তরাখণ্ডে । এই পাহাড়ি রাজ্যের সঙ্গে গুরুদেবের সম্পর্ক বেশ পুরনো । ডালহৌসি পাহাড়ের কোলে অবস্থিত ছোট্ট জনপদ রামগড়ে একসময় আসা-যাওয়া ছিল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ।


নৈনিতাল থেকে রামগড়ের দূরত্ব মাত্র ৩০ কিলোমিটার , সেখানেই নিরিবিলি পরিবেশে পাহাড়ের কোলে রয়েছে কবিগুরুর কটেজ । জানা যায় , বিংশ শতাব্দীর গোড়ার সময়ে রামগড়ের ওই বাড়িতে এসে বেশ কিছু দিন কাটিয়েছিলেন বিশ্বকবি । সেখানেই তাঁর কালজয়ী সৃষ্টি ‘গীতাঞ্জলির’ কিছু অংশ রচনা করেছিলেন । কবিগুরুর স্মৃতিমন্ডিত সেই জায়গা বর্তমানে ‘টেগর টপ’ নামে পরিচিত । যা আজও রামগড়ে ঘুরতে আসা পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ । যদিওবা বর্তমানে গুরুদেবের বাসভবনের দশা ভগ্নপ্রায় , যা দেখে অনেকেই তা সংরক্ষণের দাবি জানান ।


এবার সেই ‘টেগোর টপ’কে ঘিরেই গড়ে উঠবে নতুন শিক্ষাক্ষেত্র ,বিশ্বভারতীর শাখা সংগঠন । প্রধানমন্ত্রী দফতর ও কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের কাছে এই প্রস্তাব আসার পর থেকেই উছ্বসিত গোটা বিশ্বভারতী । কারন, গুরুদেব বরাবর চেয়েছিলেন বিশ্বভারতী শুধু শান্তিনিকেতনে নয় বিশ্ব ভারতে সমাদৃত হোক । কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া এই ভাবনা গুরুদেবের সেই স্বপ্নকে পূরণ করবে ।


বিশ্বভারতীর উপাচার্য্য অধ্যাপক বিদ্যুৎ চক্রবর্তী জানান , নতুন এই ক্যাম্পাস তৈরির পরিকল্পনা অনেকংশেই এগিয়ে গিয়েছে । মূলত ‘টেগোর টপ’-এ বিশ্বকবির বাড়ি ছাড়াও ১০ একর জমি রয়েছে। সেই সঙ্গে পার্শ্ববর্তী ৩০০ একর জমিকেও এই শিক্ষাক্ষেত্র নির্মাণে ব্যবহার করার পরিকল্পনা রয়েছে । কিন্তু ,ওই জমি উত্তরাখন্ড সরকারের অধীনস্থ ,তাই সেই জমির বিষয়ে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক সরকারের সঙ্গে কথা বলছেন ।


প্রাথমিকভাবে ডালহৌসির রামগড়ে তৈরী হতে চলা এই ক্যাম্পাসে (Visva Bharati) পাঁচটি বিভাগ ( যেমন- স্কুল অফ হিমালয়ান স্টাটিজ , স্কুল অফ ল্যাংগুয়েজ , স্কুল অফ সোশ্যাল সায়েন্সেস , স্কুল অফ পাবলিক পলিসি এন্ড গুড গভর্নেন্স এবং স্কুল অফ আর্টস এন্ড এস্থেটিক্স) চালুর ভাবনা নেওয়া হয়েছে । আগামী শিক্ষাবর্ষের মধ্যে অন্তত এক-দুটি স্কুল চালু করে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান উপাচার্য । ধীরে ধীরে স্কুলের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

এই মুহূর্তে

x