25.4 C
Durgapur
Friday, April 16, 2021

মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিক ধর্মঘট, বিদ্যুৎ সংকটের আশংকা

নরেশ ভকত, বাঁকুড়াঃ মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রে ৭২ ঘন্টা ধর্মঘটের (Strike) ডাক দিল বার্ষিক মেইনটেনেন্স কাজের ঠিকা শ্রমিকরা । শুক্রবার সকাল ৬ টা থেকে ডি.ভি.সির মেজিয়া তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রে বার্ষিক মেইনটেনেন্স কাজের ঠিকা শ্রমিকরা ৭২ ঘন্টার ধর্মঘট (Strike) ডেকে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন ।

যার ফলে পূজোর মুখে রাজ্য জুড়ে বিদ্যুৎ বিপর্যের আশঙ্কা তৈরী হতে পারে বলে মনে করছেন ডি.ভি.সি কর্মী-সংগঠকরা।

বিক্ষোভকারীদের দাবি , ঠিকা সংস্থাগুলি ক্রম আইন মঞ্চে না। প্রাপ্য বেতন দেওয়া হচ্ছে না তাদের , শ্রমিকরা তাদের নির্ধারিত বেতনের থেকে ৩ থেকে ৫ হাজার টাকা করে কম পাচ্ছে বলে অভিযোগ । এই নিয়ে বারংবার ডিভিসির কাছে আবেদন করলেও ডি.ভি.সি কর্তৃপক্ষ কোনো সদর্থক পদক্ষেপ নেয়নি‌। তাই এই চরম সিদ্ধান্ত (Strike) নিতে তারা বাধ্য হয়েছেন বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

এই প্রসঙ্গে মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পের ডি.জি.এম (প্রশাসন) প্রবীর কুমার চাঁদ জানান , বিষয়টি নিয়ে আমাদেরও সহানুভূতি রয়েছে কিন্তু এর সমাধান ডি.ভি.সির সদর দপ্তরের আওতায় । আশা করছি শীঘ্রই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

উল্লেখ্য, ডি.ভি.সি-র মেজিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র দেশের অন্যতম বৃহত্তম বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী সংস্থা । এখানে প্রায় সাড়ে তিন হাজার ঠিকা শ্রমিক প্রত্যক্ষভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সাথে যুক্ত। ধর্মঘটের ফলে এখানকার বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী ইউনিটগুলি একে একে বসে যাওয়ারও আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ডি.ভি.সি কর্মী ইউনিয়নগুলির দাবি , এই প্রকল্পে সংস্থার যে কর্মী সংখ্যা তা দিয়ে প্ল্যান্ট হয়তো একদিন চালানো সম্ভব কিন্তু এই ধরনের বিক্ষোভ (Strike) চলতে থাকলে আগামী দিনে ইউনিটগুলি বসে যেতে পারে । বসে যাওয়া ইউনিট পুনঃরায় চালু করতে গেলে ৪০ কিলোলিটার তেলের প্রয়োজন যার মূল্য প্রায় ২০ লক্ষ টাকা । এখানে যে আটটি ইউনিট চালু রয়েছে এগুলি বসে গেলে ডিভিসির প্রতিদিন কয়েক কোটি টাকা পর্যন্ত ক্ষতি হতে পারে।

এই মুহূর্তে

x